(জিনতত্ত্ব ও বিবর্তন) এইচএসসি : জীববিজ্ঞান সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর

জিনতত্ত্ব ও বিবর্তন হচ্ছে একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির জীববিজ্ঞান ২য় পত্রের ১১শ অধ্যায়। জিনতত্ত্ব ও বিবর্তন অধ্যায় থেকে সেরা বাছাইকৃত ৫টি সৃজনশীল প্রশ্ন এবং সে প্রশ্নগুলোর উত্তর সম্পর্কে আলোচনা করা হলো-

সৃজনশীল প্রশ্ন ১ : বর্ণান্ধতা একটি লিঙ্গ জড়িত রোগ। এর কোন চিকিৎসা নেই এবং মহিলাদের তুলনায় পুরুষরাই বেশী আক্রান্ত হয়।

ক. হিমোফিলিয়া কী?
খ. মেন্ডেলের গবেষণায় মটরশুঁটি উদ্ভিদকে বেছে নেওয়ার কারণ কী?
গ. উদ্দীপকে বর্ণিত-লিঙ্গ জড়িত রোগটির জিনতাত্ত্বিক ব্যাখ্যা দাও।
ঘ. জিনতত্ত্ব ও বিবর্তন অধ্যায়ের সাহায্যে বর্ণনা কর, মহিলাদের তুলনায় পুরুষরাই বেশী বর্ণান্ধ হয়।

সমাধান : ক. কহিমোফিলিয়া হলো মানুষের একটি সেক্স লিংকড ডিসঅর্ডার যা হলে ক্ষতস্থান থেকে অবিরাম রক্তক্ষরণ ঘটে এবং রক্ত জমাট বাধে না।

খ. মেন্ডেল তার গবেষণার জন্য মটরশুঁটি গাছ নির্বাচন করেছিলেন। কারণ এটি স্বপরাগী উদ্ভিদ। কাজেই এতে প্রাকৃতিক উপায়ে চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য সংমিশ্রণ হয়নি। তিনি সাত জোড়া বৈসাদৃশ্যময় চরিত্র গ্রহণ করেন। সৌভাগ্যবশত এ সাত জোড়া জিনই পৃথক পৃথক ক্রোমোসোমে উপস্থিত ছিল। কোনো দুটি জিনই এক ক্রোমোসোমে ছিল না। মটরশুঁটি গাছে সাত জোড়া হোমোলোগাস ক্রোমোসোম আছে।

গ. উদ্দীপকে বর্ণিত লিঙ্গ জড়িত রোগটি হলো বর্ণান্ধতা। এ সম্পর্কে জিনতত্ত্ব ও বিবর্তন অধ্যায়ে ব্যাখ্যা করা হলো।

ঘ. ‘মহিলাদের তুলনায় পুরুষরাই বেশী বর্ণান্ধ হয়’ এ সম্পর্কে জিনতত্ত্ব ও বিবর্তন অধ্যায়ে আলোচনা করা আছে।

সৃজনশীল প্রশ্ন ২ : স্বাভাবিক মা-বাবার সন্তান হাফিজ মুকবধির।

ক. এপিস্ট্যাসিস কি?
খ. সমসংস্থ অঙ্গ বলতে কী বুঝায়?
গ. উদ্দীপকের ঘটনাটির জিনতাত্ত্বিক ব্যাখ্যা দাও।
ঘ. হাফিজের সন্তান মুকবধির না হওয়ার জন্য কী ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারে- তা জিনতত্ত্ব ও বিবর্তন অধ্যায়ের আলোকে ব্যাখ্যা কর।

সমাধান : ক. একটি জিন যখন অন্য একটি নন-অ্যালিলিক জিনের কার্যকারিতা প্রকাশে বাধা দেয় তখন এ প্রক্রিয়াই হলো এপিস্ট্যাসিস।

খ. বিভিন্ন প্রাণীতে বিদ্যমান যেসব তাপ গঠনের দিক থেকে অনুরূপ তাদের সমসংস্থ অঙ্গ বলে। এসব অঙ্গ কাজের দিক থেকে অনুরূপ হতে পারে বা নাও হতে পারে। যেমন: পাখি ও বাদুরের ডানা, মানুষের হাত, তিমির ফ্লিপার প্রভৃতি সমসংস্থ অঙ্গ।

গ. উদ্দীপকে উল্লেখিত হয়েছে স্বাভাবিক মা-বাবার সন্তান হাফিজ মুক ও বধির। এ সম্পর্কে জিনতত্ত্ব ও বিবর্তন অধ্যায়ে ব্যাখ্যা করা আছে।

ঘ. হাফিজের জিনোটাইপ হলো DDee. তাহলে সকল সন্তান স্বাভাবিক হওয়ার জন্য হাফিজের স্ত্রীকে DDEE জিনোটাইপধারী হতে হবে। এ সম্পর্কে জিনতত্ত্ব ও বিবর্তন অধ্যায়ে আলোচনা করা আছে।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৩ : গবেষণাগারে কালো ও সাদা ইঁদুরের মধ্যে ক্রস ঘটিয়ে দেখা গৈল তাদের সন্তানদের ২৫% ভ্রূণাবস্থায়ই মারা যায়। বিজ্ঞানী তার ব্যাখ্যায় বললেন, এটি বিশেষ এক ধরনের জিন এর কারণে ঘটে।

ক. এপিস্ট্যাসিস কাকে বলে?
খ. স্টেম কোষ ও স্মৃতি কোষ বলতে কী বুঝ?
গ. উদ্দীপকের ইঁদুরের মধ্যে উল্লেখিত বিশেষ জিন না থাকলে F2 জনর ফলাফল কী হবে ব্যাখ্যা কর।
ঘ. উদ্দীপকের আলোকে বিশেষ জিনযুক্ত ইঁদুরের F2 জনুর অনুপাত জিনতত্ত্ব ও বিবর্তন অধ্যায়ের আলোকে ব্যাখ্যা কর।

সমাধান : ক. একটি জিন যখন অন্য একটি নন-অ্যালিলিক জিনের কার্যকারিতা প্রকাশে বাধা দেয় তখন এ প্রক্রিয়াকে এপিস্ট্যাসিস বলে।

খ. স্টেম কোষ হলো অবিভেদিত ও আজীবন বিভাজনক্ষম কোষ যা মানব দেহের প্রায় ২০০ ধরনের বিশেষায়িত কোষ (B-কোষ, T-কোষ ইত্যাদি) এ রূপান্তরিত হতে পারে। সক্রিয় লিম্ফোসাইটের সংখ্যা বৃদ্ধির মাধ্যমে সৃষ্ট কোষই হলো স্মৃতি কোষ।

গ. উদ্দীপকের কালো ও সাদা ইঁদুরের মধ্যে উল্লেখিত বিশেষ জিনটি হলো লিথাল জিন। এ সম্পর্কে জিনতত্ত্ব ও বিবর্তন অধ্যায়ে ব্যাখ্যা করা আছে।

ঘ. উদ্দীপকে গবেষণাগারে কালো ইঁদুরের মাঝে ক্রস ঘটিয়ে দেখা যায় যে, তাদের সন্তানদের ২৫% ভ্রূণাবস্থায় মারা যায়। আর এটা হয় লিথাল বা ঘাতক জিন নামক এক ধরনের বিশেষ জিন এর কারণে। এ সম্পর্কে জিনতত্ত্ব ও বিবর্তন অধ্যায়ে আলোচনা করা আছে।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৪ : দুই বা ততোধিক জোড়া বিপরীত বৈশিষ্ট্য নিয়ে স্বাধীনভাবে সঞ্চালন সূত্রটি প্রতিষ্ঠিত। এই সূত্র অনুযায়ী F2 জনুতে ৯ : ৩: ৩: ১ অনুপাতে সদস্য পাওয়া গেলেও এর ব্যতিক্রম রয়েছে। সূত্রটি মেন্ডেলের ২য় নামে পরিচিত।

ক. গ্যামেটোজেনেসিস কী?
খ. অন্তঃক্ষরা গ্রন্থি কাকে বলে?
গ. উদ্দীপকে উল্লেখিত সূত্রটির যে কোন একটি ব্যতিক্রম অনুপাত জীন তত্ত্বের আলোকে ব্যাখ্যা কর।
ঘ. উদ্দীপকে আলোচ্য সূত্রটি জিনতত্ত্ব ও বিবর্তন অধ্যায়ের আলোকে বিশ্লেষণ কর।

সমাধান : ক. যৌন প্রজননক্ষম প্রাণীতে ডিপ্লয়েড জার্মিনাল কোষ থেকে হ্যাপ্লয়েড জননকোষ বা গ্যামেট সৃষ্টির প্রক্রিয়াই হলো গ্যামেটোজেনেসিস।

খ. যেসব নালিবিহীন গ্রন্থি থেকে ক্ষরিত রস রক্তের মাধ্যমে পরিবাহিত হয়ে দূরবর্তী অঙ্গে ক্রিয়াশীল হয়, তাদের অন্তঃক্ষরা গ্রন্থি বলে। পিটুইটারি গ্রন্থি, থাইরয়েড গ্রন্থি, থাইমাস গ্রন্থি, অ্যাড্রেনাল গ্রন্থি, আন্ত্রিক গ্রন্থি প্রভৃতি হলো মানবদেহের বিভিন্ন অন্তঃক্ষরা গ্রন্থি।

গ. মেন্ডেল ২য় সূত্রের একটি ব্যতিক্রম হলো এপিস্ট্যাসিস। এ সম্পর্কে জিনতত্ত্ব ও বিবর্তন অধ্যায়ে ব্যাখ্যা করা হলো।

ঘ. উদ্দীপকের আলোচ্য সূত্রটি হলো মেণ্ডেলের ২য় সূত্র। এ সম্পর্কে জিনতত্ত্ব ও বিবর্তন অধ্যায়ে বিশ্লেষণ করা আছে।

— ৫ম অধ্যায় : মানব শারীরতত্ত্ব: শ্বসন ও শ্বাসক্রিয়া
— ৬ষ্ঠ অধ্যায় : মানব শারীরতত্ত্ব: বর্জ্য ও নিষ্কাশন

সৃজনশীল প্রশ্ন ৫ : লিথাল জিন নামক জিনের হোমাজাইগাসরূপ উপস্থিতিতে মেন্ডেলের ১ম সূত্রের ব্যতিক্রম ঘটতে দেখা যায়। এখানে F1 জনুতে ২ : ১ অনুপাত সদস্য পাওয়া যায়।

ক. জিনোটাইপ কী?
খ. ব্যাকব্রুস ও টেস্টস বলতে কী বোঝায়?
গ. উদ্দীপকে উল্লিখিত জিনের প্রভাবে প্রাণিতে কী ধরনের ক্ষতি হয় তা উল্লেখ কর।
ঘ. উদ্দীপকে উল্লেখিত সূত্রের ব্যতিক্রম অনুপাত জীনতত্ত্বের আলোকে বিশ্লেষণ কর।

সমাধান : ক. কোন জীবের লক্ষন নিয়ন্ত্রণকারী জিন যুগলের গঠনই হলো জিনোটাইপ।

খ. প্রথম বংশধর F1 কে তার প্রকৃত প্রচ্ছন্ন মাতা-পিতার সাথে ক্রস করানোই টেস্ট ক্রস। E1 বংশধরের জীবকে তার প্যারেন্টের সাথে ক্রস করানোই হলো ব্যাক ক্রস।

গ. উদ্দীপকে উল্লেখিত জিনটি হলো লিথান জিন। এ সম্পর্কে জিনতত্ত্ব ও বিবর্তন অধ্যায়ে ব্যাখ্যা করা আছে।

ঘ. উদ্দীপকে মেন্ডেলের ১ম সূত্রটি উল্লেখ করা যায়। এ সম্পর্কে জিনতত্ত্ব ও বিবর্তন অধ্যায়ে আলোচনা করা আছে।

Leave a comment

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More